মেনু নির্বাচন করুন
খবর

বীজ প্রত্যয়ন কার্যক্রম জোরদারকরণ প্রকল্পের অর্থায়নে দিনব্যাপী আঞ্চলিক সেমিনার অনুষ্ঠিত

টেকশই উন্নয়ন অভীষ্ট্য লক্ষ্য বাস্তবায়নে রংপুর অঞ্চলের বীজ প্রত্যয়ন কার্যক্রম তুলে ধরার উদ্দেশ্যে বীজ প্রত্যয়ন কার্যক্রম জোরদারকরণ প্রকল্পের অর্থায়নে দিনব্যাপী আঞ্চলিক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত ১৫/০২/২০২০ খ্রি: তারিখ শনিবার রংপুর অঞ্চলের আঞ্চলিক বীজ প্রত্যয়ন অফিসার কৃষিবিদ জনাব সহির উদ্দিনের সভাপতীত্বে উক্ত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  কৃষিবিদ আব্দুর রাজ্জাক, পরিচালক, বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সি, গাজীপুর।কৃষি সম্প্রস্রণ অধিদপ্তর, রংপুর অঞ্চলের সম্মেলনকক্ষে অনুষ্ঠিত সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কৃষিবিদ মোহাম্মদ আলী, অতিরিক্ত পরিচালক, কৃষি সম্প্রস্রণ অধিদপ্তর, রংপুর অঞ্চল, রংপুর এবং কৃষিবিদ আব্দুল ওয়াজেদ, অতিরিক্ত পরিচালক, কৃষি সম্প্রস্রণ অধিদপ্তর, দিনাজপুর অঞ্চল, দিনাজপুর।সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কৃষিবিদ মোঃ শফিকূল ইসলাম, জেলা বীজ প্রত্যয়ন অফিসার, লালমনিরহাট । বিভিন্ন মানসম্পন্ন বীজের ব্যবহার শতকরা ১৮-২০ ভাগ থেকে ৩০-৩৫ ভাগে উন্নয়নের লক্ষ্যে বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সি কতৃক গৃহিত প্রকল্পের লক্ষ্য, উদ্দেশ্য ও মাঠ কার্যক্রম সম্পর্কে সেমিনারে বক্তব্য রাখেন প্রকল্প পরিচালক কৃষিবিদ ড. শুকদেব কুমার দাস। সেমিনারে অংশগ্রহনকারীগণ রংপুর অঞ্চলে মানসম্পন্ন বীজের উৎপাদন ও বিপণনে যেসব সমস্যা রয়েছে সে বিষয়ে আলোচনা করেন এবং সমস্যাগুলো উত্তরণে বেশ কিছু ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করেন। সুপারিশসমূহের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছে – বীজের লাইসেন্স প্রদানের ক্ষেত্রে বীজ উৎপাদনকারী ও বীজ বিক্রেতার আলাদা লাইসেন্স প্রদান, জেলা বীজ প্রত্যয়ন অফিসারের সুপারিশের ভিত্তিতে প্রজনন বীজ উৎপাদনের ক্ষেত্রে বীজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা বিবেচনা করা, বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সির পক্ষ্য থেকে বিভিন্ন জাত মূল্যায়নের আঞ্চলিক ট্রায়াল প্লট স্থাপনের ব্যবস্থা করা,  বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সির আওতায় সকল প্রকার বীজ উৎপাদন কার্যক্রম গ্রহন করা এবং শ্রেণীভিত্তিক বীজের মূল্য নির্ধারণ করে দেয়া।সেমিনারে আরো উপস্থিত ছিলেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর রংপুর ও দিনাজপুর অঞ্চলের উপপরিচালকবৃন্দ সহ জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের অফিসারবৃন্দ, বীজ প্রত্যয়ন এজেন্সি, রংপুর অঞ্চল ও জেলা পর্যায়ের অফিসারবৃন্দ, বাংলাদেশ কৃষি উন্নয়ন কর্পোরেশন(বিএডিসি), বাংলাদেশ পাট গবেষণা প্রতিষ্ঠান(বিজেআরআই), বাংলাদেশ পরম্নু কৃষি গবেষনা প্রতিষ্ঠান(বিনা), কৃষি তথ্য সার্ভিস এবং বীজ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগণ।

সূত্রঃ দৈনিক বায়ান্নর আলো, রবিবার, ১৬ ফেব্রুয়ারি।

ছবি


ফাইল


প্রকাশনের তারিখ

২০২০-০২-১৮

আর্কাইভ তারিখ

২০২১-১১-০৫


Share with :

Facebook Twitter